Dark web! ডার্ক ওয়েব ও ওয়েবসাইটের প্রকারভেদ!

ডার্ক ওয়েব (Dark web) শব্দটা শুনলেই কেন জানিনা আমাদের কাছে মনে হয়- হয়তো এক অন্ধকার জগত, হয়ত ভয়ঙ্কর কোন কিছু বা অবৈধ কোন জায়গা! তাছাড়া বেশ কিছু ভুল ধারনা আমাদের মাথায় কাজ করে, তো আজকের এই ব্লগে আমি আপনাদের

- ডার্ক ওয়েব কি?

- কিভাবে ডার্ক ওয়েবে ঢুকবেন?

- এটি অবৈধ না বৈধ?

- কিভাবে ডার্ক ওয়েব কাজ করে?

এ বিষয়গুলো জানাবো! আশা করছি সাথে শেষ পর্যন্ত থাকবেন! তো ইন্টারনেটের সমস্ত সাইটগুলোকে তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে, 

(১) সার্ফেস ওয়েব (Surface web)

(২) ডিপ ওয়েব (Deep web)

(৩) ডার্ক ওয়েব (Dark web)


সারফেস ওয়েব কি? 

সার্চ ইঞ্জিন (Search engine) যেমন গুগোল এ সার্চ দেওয়ার মাধ্যমে যে সকল ওয়েবসাইট খুঁজে পাই সে সকল ওয়েবসাইট গুলো সার্ফেস ওয়েব এরই অংশ! অর্থাৎ যেগুলোতে সাধারন পাবলিকের এক্সেস (Access) থাকে না যেমন বিভিন্ন ব্লগ ওয়েবসাইট, বিজনেস ওয়েবসাইট কিংবা ইনফর্মেশন ওয়েবসাইট অর্থাৎ যেগুলো সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ দিয়ে কিংবা যেকোন ব্রাউজারে লিংক লিখে সহযেই ঢোকা যায়, এমনকি আমার এই ওয়েবসাইটটিও সার্ফেস ওয়েব এরই অংশ, আরেকটা মজার কথা হচ্ছে সার্ফেস ওয়েব ইন্টারনেটের সবচেয়ে ছোট অংশ যেটা আমরা রেগুলারলিই ইউজ করে থাকি!

ডিপ ওয়েব কি? 


অনেকেই ডিপ ওয়েব এবং ডার্ক ওয়েব কে একই জিনিস ভেবে বসে কিন্তু এই দুটো মোটেই এক জিনিস না! ডিপ ওয়েব বলতে যেগুলো সার্চ ইঞ্জিনে ইন্ডেক্স (Index) হয় না সেগুলো কে বোঝানো হয়! যেমন কোনো ডেটাবেজ, ইমেইল ইত্যাদি, উদাহরণ হিসেবে ধরে নিন আপনার গুগল ড্রাইভে কিংবা গুগল ফটোজ এ আপনার কিছু ছবি এবং ভিডিও স্টোর করা আছে, তোকেও কি সেই ফটো বা ভিডিও গুলো গুগল সার্চের মাধ্যমে খুঁজে পাবে? না কোনদিনই পাবে না যতক্ষণ পর্যন্ত না আপনি তার সাথে ছবিটির বা ভিডিওটির লিংক শেয়ার করছেন! তো এ ধরনের ওয়েবসাইট গুলো কে ডিপ ওয়েব বলা হয় যেখানে কিছু পরিমাণে ডাটা স্টোর করা থাকে যেগুলো কোন সার্চ ইঞ্জিনে ইন্ডেক্স হয়না! এগুলো সাধারণত পাবলিক এক্সেস অর্থাৎ অনুমতি ছাড়া প্রবেশ করা যায় না আর এটা সার্ফেস ওয়েব থেকে অনেক বড়!

ডার্ক ওয়েব কি?

প্রথমে জেনে নেয়া যাক এ ডার্ক ওয়েব টা কি জিনিস! আসলে ডার্ক ওয়েব হচ্ছে ডব্লিউ ডব্লিউ ডব্লিউ (WWW) অর্থাৎ ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবেরই (world wide web) একটি অংশ! যেটাতে প্রবেশ করার জন্য বিশেষ ধরনের সফটওয়্যার এর প্রয়োজন হয় এবং একবার প্রবেশ করার পর এগুলো সাধারণত ওয়েবসাইট এর মতনই কাজ করে, সাধারণত এসব ওয়েবসাইট অত্যন্ত হিডেন (Hidden) অবস্থায় থাকে এবং গুগলে ইনডেক্স না করার কারণে সার্চ দিয়েও এগুলোকে পাওয়া সম্ভব না! শুধুমাত্র আপনার কাছে যদি যে ওয়েবসাইট টিতে আপনি ঢুকতে চাচ্ছেন তার যদি প্রোপার লিংক থাকে তাহলেই আপনি সেই ওয়েব সাইটে প্রবেশ করতে পারবেন! ডার্ক ওয়েবে বিশেষ ধরনের মার্কেট আছে যেগুলোকে ডার্কনেট মার্কেট (Darknet Market) বলা হয়, যার মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের অবৈধ পণ্য যেমন ড্রাগস, অস্ত্র সমস্ত কিছু বিক্রয় হয়, এমনকি মানুষ মারার জন্য ও কিলার (Killer or hitman) হ্যাকার (Hacker) সমস্ত কিছু ভাড়ায় পাওয়া যায়!


আর এগুলোর লেনদেনের জন্য বিটকয়েন বা ক্রিপ্টোকারেন্সি (Cryptocurrency) ব্যবহার করার কারণে ব্যক্তির পরিচয় গোপন রাখা যায়, ক্রিপ্টোকারেন্সি (Cryptocurrency) কি তা নিয়ে আমি আলাদা একটি পোস্ট করব!


ডার্ক ওয়েবে পরিচয় গোপন রেখে ইন্টারনেট ব্যবহার করার সুযোগ দেয়ার কারণে সরকার বা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী থেকে নিজের পরিচয় গোপন রেখে যোগাযোগ করা যায়, তাছাড়াও সাংবাদিকদের জন্য এটা আদর্শ জায়গা হতে পারে কারণ এখানে সরকারের বিভিন্ন অবৈধ কাজের ডকুমেন্টও পাওয়া সম্ভব! 

মেরিনা ওয়েব কি?


ডার্ক ওয়েব থেকে আরও ভিতরের ওয়েব কে মেরিনা ওয়েব (Marina Web) বলা হয়! অর্থাৎ এখানে আরো মূল্যবান সিক্রেট ডাটা থাকে, এবং এ পর্যন্ত যাওয়া আরো কষ্টসাধ্য কাজ, অনেকেই এটাকে আলাদাভাবে মেরিনা ওয়েব না বলে ডার্ক ওয়েব এই বলে! 


ডার্ক ওয়েবে কিভাবে ঢুকবেন?

ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার জন্য বেশ কিছু সফটওয়্যার আছে যেমন: টর ব্রাউজার (Tor browser), ফ্রী নেট এবং আইপি২ (Ip2) ব্রাউজার ব্যবহার করে ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করতে পারবেন!


তবে এগুলোর মধ্যে সবচাইতে জনপ্রিয় হচ্ছে টর ব্রাউজার! যেটাকে অনিয়ন ব্রাউজার ও (Onion browser) বলা হয়, কারণ এটা সবচাইতে সহজ ব্যবহারযোগ্য সফটওয়্যার, টর আপনার গোপনীয়তা ও প্রাইভেসি রক্ষার মাধ্যমে মেসেজ পাস করার জন্য নেটওয়ার্ক ব্যবহার করার সুযোগ করে দেয়!


এই ব্রাউজার মেসেজগুলো এনক্রিপ্ট‌ (Encrypt) করার মাধ্যমে একনেট থেকে অন্য নেটে পাঠায় ফলে প্রতিটা মাধ্যমে শুধুমাত্র জানতে পারে কোন মেশিন থেকে ডাটা পাঠানো হচ্ছে এবং কোথায় যাচ্ছে!


তাই আপনি টর ব্রাউজার ডাউনলোড দিয়ে ব্যবহার করার মাধ্যমে ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করতে পারবেন! তবে আমাদের মধ্যে অনেকেরই একটা ভুল ধারণা আছে যে টর আমাদেরকে পুরোপুরি অ্যানোনিমাস (Anonymous) বানিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করার সুযোগ করে দেয়! আপনি যখন ডার্ক ওয়েবে যেই সাইটে প্রবেশ করছেন সেখানে আপনি আপনার সম্পর্কের যেই ইনফরমেশন গুলো শেয়ার করছেন যেমন আপনার ইউজারনেম কিংবা ইমেইল সেগুলো প্রকাশ পেতেই পারে, আর যারা পুরোপুরি অ্যানোনিমাস থাকতে চায় তারা বিশেষ ধরনের সার্ভিস নিতে পারে এই সকল ক্ষেত্রে তাদের আইডেন্টিটি গোপন রাখার জন্য, আমি এখানে অত্যন্ত ডিটেইলস আপনাদের সাথে শেয়ার করবো না কেননা আমি চাইবো না আপনারা কখনো ডার্কওয়েবে ভিজিট করুন, কেননা ডার্কওয়েবে আপনার উপকার থেকে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি! আর তাছাড়া আপনি ডার্কওয়েবে টাকা খরচ ছাড়া বিশেষ কোনো ধরনের সার্ভিস ও পাবেন না! 

ডার্ক ওয়েবে কিভাবে লেনদেন হয়?

ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করার মাধ্যমে অনেকেই অনেককে বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস দিয়ে থাকে এবং কিনে থাকে, কিন্তু এ সমস্ত কাজে সাধারণ টাকা বা ডলার ব্যবহার করা হয় না কারণ সাধারণ ব্যাংকিং ব্যবস্থার লেনদেন করলে ধরা পড়ার চান্স ১০০% তাই ডার্ক ওয়েবে ক্রিপ্টোকারেন্সি যেমন বিটকয়েন


এর মাধ্যমে লেনদেন করা হয়, ফলে লেনদেন ট্র্যাক করাও সম্ভব নয়!


ডার্ক ওয়েব বৈধ না অবৈধ?

আমাদের দেশে ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে সরাসরি কিছু না বলা থাকলেও যতক্ষণ পর্যন্ত না আপনি ডার্ক ওয়েবের কোন অবৈধ কাজ করছেন ততক্ষণ পর্যন্ত এটি বৈধ! 


সরকার কেন ডার্ক ওয়েব বন্ধ করে না?

ডার্ক ওয়েবের বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিভিন্ন অবৈধ কাজ চলে এবং বিভিন্ন দেশের সরকারের বিরুদ্ধেও অনেক গোপনিয় ডকুমেন্টে ও পাওয়া যায়! তাই আমাদের মনে এই প্রশ্ন আসতে পারে যে সরকার এই সংস্থাগুলো বা এ ধরনের সাইট গুলো বন্ধ করার জন্য কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না কেন? আসলে আমাদের ধারণা থেকেও ডার্ক ওয়েব অনেক বড়! আরে সকল কিছুই অবৈধ নয় কারণ টরকে প্রাইভেসি টুল হিসেবেও ব্যবহার করা হয়, ডার্ক ওয়েবের এক্সটেনশন (Extension) ডট অনিয়ন (.onion) ব্যবহার করা হয়,


এবং এ ধরনের সাইট গুলোকে গুনে শেষ করা সম্ভব নয়, এবং আপনি কয়টি কে খুজে বের করবেন এবং কয়টি কিই বন্ধ করবেন? তাছাড়া এই ওয়েবসাইট এগুলোর মালিক হোস্টিং সার্ভিস কোন কিছুই সহজে খুঁজে পাবেন না বিভিন্ন অ্যানোনিমাস টুলের কারণে! ফলে এ সকল ধরনের ওয়েবসাইটগুলোকে বন্ধ করা প্রায় অসম্ভব! তো বন্ধুরা আমি আশা করছি আপনারা বুঝতে পেরেছেন ডার্ক ওয়েব কি, কেন এবং কিভাবে কাজ করে! এবং আপনি চাইলে কিভাবে ডার্ক ওয়েবে প্রবেশ করতে পারবেন! এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ!






 

Next Post Previous Post
1 Comments
  • NAJMUL
    NAJMUL June 15, 2022 at 2:28 PM

    mdnajmulhook4@gmail.com

Add Comment
comment url