অনলাইন থেকে আয় করুন ১০০০$ || Earn 1000$ from online!


 হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন, আমরা সবাই আমাদের অবসর সময়টুকু অনলাইন থেকে উপার্জন করতে চাই! কিন্তু বর্তমান সময় হাজার হাজার অনলাইন আর্নিং সাইট থাকার কারণে কোনটা রিয়েল (Real) এবং কোন সাইট টা স্ক্যাম (Scam) তা জানা খুবই কঠিন, এবং অধিকাংশ সময়ই আমরা প্রতারণার শিকার হই! একটা জিনিস সবসময় মাথায় রাখবেন আপনি কখনো অনলাইন থেকে ইনকাম করে দিনে দিনে কোটিপতি হতে পারবেন না, তবে অনলাইন থেকে ইনকাম করে কোটিপতি হওয়া কঠিন হলেও অসম্ভব কিছু না! সময়ের ব্যাপার, আপনাদের লেগে থাকতে হবে আপনি যেই সাইটে কাজ শুরু করবেন সেই সাইটে আপনার সময় দিতে হবে, আজ আমি আপনাদের জানাবো কিভাবে আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার দিয়ে অনলাইন থেকে একটি মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারবেন তাহলে চলুন শুরু করা যাক!


১. গুগল এডসেন্স (Google adsense) :

আমার লিস্টে প্রথমে রয়েছে গুগল এডসেন্স, গুগল এডসেন্স থেকে যে কি পরিমান ইনকাম করা যায় তা আপনার ধারণার বাহিরে! তবে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করাটা অত সহজ না, গুগল এডসেন্স আপনার ওয়েবসাইটে অথবা আপনার ইউটিউব চ্যানেলের কনটেন্ট এর উপর অথবা আপনার কোন অ্যাপস থাকলে সেখানে অ্যাডভার্টাইজমেন্ট শো (Show) করাবে এবং তার বিনিময়ে আপনাকে পেমেন্ট প্রদান করবে, তবে অবশ্যই তার জন্য প্রয়োজন আপনার নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল বা একটি ওয়েবসাইট অথবা একটি অ্যাপস যেখানে গুগোল তার অ্যাডভার্টাইজমেন্ট শো (Show) করাতে পারবে, তাছাড়াও আপনার ওয়েব সাইট বা ইউটিউব এর কনটেন্ট অথবা আপনার অ্যাপস গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল প্রয়োজন, বর্তমান সময়ে অধিক পরিমাণে কনটেন্ট ক্রিয়েটর থাকায় গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল একটু কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে! তাছাড়া আপনি যদি আপনার কনটেন্ট এর উপর একটু সময় দিতে পারেন তাহলে অবশ্যই গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল পাবেন, আপনি চাইলে নিজের জন্য সম্পূর্ণ ফ্রিতে একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে পারেন যেখানে আপনি নিজের কনটেন্টের লিখে গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল নিয়ে আরনিং (Earning) শুরু করতে পারেন এর উপরে কনটেন্ট চাইলে নিচে কমেন্ট বক্সে জানান ।


২. অনলাইন সার্ভে (Online Survey) :

সার্ভে শব্দ টা শুনে আপনার কাছে অদ্ভুত লাগতে পারে, আপনার মনে নিশ্চয়ই এখন একটা প্রশ্ন এসেছে যে সার্ভে (Survey) অর্থ তো "জরিপ" সার্ভে থেকে আবার কিভাবে ইনকাম করা সম্ভব? ব্যাপারটা অদ্ভুত হলেও সত্য যে এমন অনেক সার্ভে সাইট আছে যা আপনার অপিনিয়ন (Opinion) বা মতামত এর বদলে আপনাকে পেমেন্ট দিবে অথবা অর্থ প্রদান করবে! অনলাইন সার্ভের অনেক সাইট আছে তারমধ্যে সার্ভে জাঙ্কি (Survey junkie) , অপিনিয়ন আউটপোস্ট (Opinion outpost) এই সাইট গুলো অন্যতম, তারা আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির সম্পর্কে অথবা বিভিন্ন কোম্পানির প্রোডাক্ট সম্পর্কে আপনার অপিনিয়ন (Opinion) বা আপনার মতামত চাইবে, যেমন উদাহরণ হিসেবে বলি তারা আপনাকে স্যামসাং কোম্পানি সম্পর্কে প্রশ্ন করতে পারে, যে আপনার স্যামসাং কোম্পানির কোন পণ্যটা ভাল লাগে, কোন ভালো লাগেনা বা আপনি তাদের কোন পণ্যটি ব্যবহার করেন এবং তাদের কোন দিকটি আরো ইমপ্রুভমেন্ট (improvement) এর প্রয়োজন আছে ইত্যাদি সম্পর্কে আপনাকে বিভিন্ন প্রশ্ন করবে অথবা আপনার অপিনিয়ন বা মতামত চাইবে এবং আপনার ওপেনিয়ন বা মতামত এর বদলে আপনাকে পেমেন্ট করবে। আর অনলাইন সার্ভে থেকে আপনি একটি মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন। বাংলাদেশ থেকে আপনি তেমন ভালো সার্ভে করতে পারবেন না, তার জন্য আপনাকে ভালো মানের প্রক্সি (Proxy) ব্যবহার করতে হবে।


৩. এফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate marketing) :


অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে অনলাইন থেকে ইনকাম করার একটি সহজ উপায়! আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে একটি মোটা অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য সেরা সাইট গুলো হচ্ছে আলিবাবাঅ্যামাজন, আপনাকে প্রথমে আলিবাবা অথবা অ্যামাজন সাইটের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এ জয়েন হতে হবে, তারপর আপনাকে যেকোনো একটি প্রডাক্টের এফিলিয়েট লিংক শেয়ার করতে হবে আপনার ঐ লিংকে ক্লিক করে যদি কেউ ওই প্রোডাক্টটি কিনে তাহলে আপনি সেখান থেকে কমিশন পাবেন! অর্থাৎ সেখান থেকে টাকা পাবেন, আর আপনার যদি নিজস্ব কোন ফেসবুক পেজ থাকে অথবা ব্লগ সাইট বা ওয়েবসাইট থাকে তাহলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে ইনকাম করাটা আপনার অনেক সহজ হবে।


৩. এয়ার্ড্রপ (AirDrop):


আপনারা অনেকে হয়তো বা এয়ার্ড্রপ এর সাথে পরিচিত, হয়তোবা অনেকেই প্রশ্ন করবেন যে ভাইয়া এয়ার্ড্রপ তো স্ক্যাম! হ্যাঁ তবে ৯০% এয়ার্ড্রপ স্ক্যাম হলেও ১০% কিন্তু রিয়েল পেমেন্ট করে, আপনি যদি এক মাসে একশোটা এয়ার্ড্রপ করেন তার মধ্যে থেকে কমপক্ষে পাঁচটা বা দশটা থেকে তো পেমেন্ট পাবেন! আর এই পাঁচটা বা দশটা এয়ার্ড্রপ এর পেমেন্ট আপনার জন্য যথেষ্ট হবে, কারণ যেই এক-দুই টা এয়ার্ড্রপ পেমেন্ট করে সেগুলো অনেক পরিমাণে করে, মিনিমাম একটি এয়ার্ড্রপ থেকে আপনি ৫ থেকে ১০ ডলার চোখ বন্ধ করে ইনকাম করতে পারবেন! আর একটা জিনিস মনে রাখবেন এয়ার্ড্রপ এ কাজ করার জন্য অনেক ধৈর্যের প্রয়োজন হয় আপনাকে এক টানা মিনিমাম ২ থেকে ৩ মাস প্রতিদিন মিনিমাম দশটি করে এয়ার্ড্রপ করে যেতে হবে, এবং দুই তিন মাস পর থেকেই পেইমেন্ট আসা শুরু হবে! আর এয়ারড্রপ এর কাজ তেমনো কঠিন না, আপনাকে শুধু যে ক্রিপ্টোকারেন্সি টা মার্কেটে লঞ্চ হবে তাদের যত ধরনের সোশ্যাল মিডিয়ায় পেজ বা গ্রুপ অথবা চ্যানেল আছে ওগুলোতে জয়েন হতে হবে এবং যা যা কাজ করা লাগবে তারা নির্দেশনা দিয়ে দিবে এবং সব টাস্ক (Task) কমপ্লিট হওয়ার পর আপনার যেই ওয়ালেট এর এড্রেস দিতে হবে তারা তা বলে দিবে সাধারণত আপনার ক্রিপ্টোকারেন্সির ওয়ালেটের ইথেরিয়াম (etherium) এর এড্রেস সাবমিট করতে হয়! আপনারা যারা এয়ার্ড্রপ এ কাজ করতে চান তারা টেলিগ্রামে বিভিন্ন এয়ার্ড্রপ এর গ্রুপ আছে ওগুলো তো চাইলে জয়েন হতে পারেন।


༆ একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন আপনি অনলাইনের যেই সেক্টরেই কাজ করেন না কেন আপনার ধৈর্যের প্রয়োজন আছে! আগে মনস্থির করে নিবেন যে কোন সেক্টরে কাজ করবেন তারপর ফুল অফ কনফিডেন্স (Full of confidence) নিয়ে ওই সেক্টরে কাজ করা শুরু করুন একদিন অবশ্যই সফলতা পাবেন! 


۝ ধন্যবাদ সবাইকে ۝

Next Post Previous Post
2 Comments
  • Unknown
    Unknown April 19, 2022 at 9:17 AM

    Vaiya Kivabe free te blog Site khulta parbo otar upor ekta tutorial dan please please

    • M.S.Talha
      M.S.Talha April 19, 2022 at 11:32 AM

      Dear user, Thanks for Supporting us, we will try!

Add Comment
comment url